< Refuge

যিকর নং ১২৬:


ফজরের পরে ও আসরের পরে, ১০০ বার

سُبْحَانَ اللّٰهِ

আল্লাহ অতি-পবিত্র

সুবহা-নাল্লাহ

আব্দুল্লাহ ইবনু আমর (রা) বলেন, রাসূলুল্লাহ (স) বলেছেন, সূর্যোদয়ের আগে ও সূর্যাস্তের আগে ১০০ বার ‘সুবহানাল্লাহ’ বলা একশতটি উট আল্লাহর ওয়াস্তে দান করার চেয়ে উত্তম। এ দু সময়ে ১০০ বার ‘আল-হামদু লিল্লাহ’ বলা আল্লাহর পথে জিহাদের জন্য ১০০ টি ঘোড়ার পিঠে মুজাহিদ প্রেরণ করা থেকে উত্তম। এ দু সময়ে ১০০ বার ‘আল্লাহু আকবার’ বলা ১০০টি ক্রীতদাস মুক্ত করার চেয়ে উত্তম। আর যদি কেউ সূর্যাস্তের আগে এবং সূর্যোদয়ের আগে ‘লা- ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারীকা লাহু, লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু, ওয়া হুআ আলা কুল্লি শাইয়্যিন কাদীর’ ১০০ বার পাঠ করে তবে সে দিনে তার চেয়ে বেশি আমল আর কেউ করতে পারবে না। তবে যদি কেউ তার সমান এ যিকরগুলো পাঠ করে বা তার চেয়ে বেশি পাঠ করে তাহলে ভিন্ন কথা। (তাহলে সেই শুধু তার উপরে উঠতে পারবে।) তিরমিযীর বর্ণনায়: যদি কেউ এ দু সময়ে ১০০ বার ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু’ বলে তবে সে যেন ইসমাঈল বংশের একশত ব্যক্তিকে দাসত্ব থেকে মুক্তি প্রদান করলো।” ইমাম তিরমিযী ও অন্যান্য মুুহাদ্দিস হাদীসটিকে ‘হাসান’ বলে উল্লেখ করেছেন।

১০০ বার

اَلْحَمْدُ لِلّٰهِ

সকল প্রশংসা আল্লাহর জন্য

আলহামদুলিল্লা-হ

১০০ বার

اَللّٰهُ أَكْبَرُ

আল্লাহ অতি-মহান

আল্লা-হু আকবার

১০০ বার

لَا إِلٰهَ إِلَّا اللّٰهُ وَحْدَهُ لَا شَرِيْكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ وَهُوَ عَلَی كُلِّ شَيْءٍ قَدِيْرٌ

আল্লাহ ছাড়া কোনো মা’বুদ নেই, তিনি একক, তাঁর কোনো শরীক নেই। রাজত্ব তাঁরই এবং প্রশংসা তাঁরই। এবং তিনি সবকিছুর উপর ক্ষমতাবান।

লা- ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু, ওয়া‘হদাহু লা- শারীকা লাহু, লাহুল মুলক, ওয়া লাহুল ‘হামদ, ওয়া হুআ ‘আলা- কুল্লি শাইয়িন কাদীর।

অথবা ১০০ বার

لَا إِلٰهَ إِلَّا اللّٰهُ

আল্লাহ ছাড়া কোনো মা’বুদ নেই

লা- ইলা-হা ইল্লাল্লা-হ

আব্দুল্লাহ ইবনু আমর (রা) বলেন, রাসূলুল্লাহ (স) বলেছেন, সূর্যোদয়ের আগে ও সূর্যাস্তের আগে ১০০ বার ‘সুবহানাল্লাহ’ বলা একশতটি উট আল্লাহর ওয়াস্তে দান করার চেয়ে উত্তম। এ দু সময়ে ১০০ বার ‘আল-হামদু লিল্লাহ’ বলা আল্লাহর পথে জিহাদের জন্য ১০০ টি ঘোড়ার পিঠে মুজাহিদ প্রেরণ করা থেকে উত্তম। এ দু সময়ে ১০০ বার ‘আল্লাহু আকবার’ বলা ১০০টি ক্রীতদাস মুক্ত করার চেয়ে উত্তম। আর যদি কেউ সূর্যাস্তের আগে এবং সূর্যোদয়ের আগে ‘লা- ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারীকা লাহু, লাহুল মুলকু ওয়া লাহুল হামদু, ওয়া হুআ আলা কুল্লি শাইয়্যিন কাদীর’ ১০০ বার পাঠ করে তবে সে দিনে তার চেয়ে বেশি আমল আর কেউ করতে পারবে না। তবে যদি কেউ তার সমান এ যিকরগুলো পাঠ করে বা তার চেয়ে বেশি পাঠ করে তাহলে ভিন্ন কথা। (তাহলে সেই শুধু তার উপরে উঠতে পারবে।) তিরমিযীর বর্ণনায়: যদি কেউ এ দু সময়ে ১০০ বার ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু’ বলে তবে সে যেন ইসমাঈল বংশের একশত ব্যক্তিকে দাসত্ব থেকে মুক্তি প্রদান করলো।” ইমাম তিরমিযী ও অন্যান্য মুুহাদ্দিস হাদীসটিকে ‘হাসান’ বলে উল্লেখ করেছেন।